ঢাবি অধিভুক্ত ৭ কলেজ ও জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের পরীক্ষা চলবে

দেশে চলমান করোনাভাইরাস পরিস্থিতির কারণে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের চলমান ছুটি আগামী ২০ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত বাড়ানোর কথা জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকলেও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় অধিভুক্ত সরকারি সাত কলেজ ও জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের পরীক্ষা চলমান থাকবে।

বুধবার (২ ফেব্রুয়ারি) রাতে গণমাধ্যমের সাথে আলাপকালে এ কথা জানান তিনি। এর আগে বুধবার বিকেলে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের চলমান ছুটি আরও দুই সপ্তাহ বাড়ানোর কথা জানান ডা. দীপু মনি।

করোনা সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় গত ২১ জানুয়ারি থেকে ১৪ দিনের জন্য শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো বন্ধ ঘোষণা করে সরকার। এরপর থেকে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো অনলাইনে ক্লাস ও পরীক্ষা চালিয়ে নিচ্ছে। এদিকে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধের এই ঘোষণায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন অভিভাবক ও শিক্ষার্থীরা। তারা বলছেন, করোনা কী শুধু শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে? এখন সব শিক্ষার্থীর টিকা দেয়া হয়ে গেছে। শিক্ষকরাও টিকা পেয়েছেন। তাহলে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলা রাখতে অসুবিধা কোথায়। এমনিতে গত দেড় বছর বন্ধ থাকায় শিক্ষার্থীরা অনেক পিছিয়ে গেছে।

জানুয়ারি থেকে বাংলাদেশে করোনার তৃতীয় ঢেউ শুরু হয়েছে। এর ফলে প্রতিদিন আক্রান্ত ও মৃত্যুর হার লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে। সর্বশেষ গতকাল মঙ্গলবার (১ ফেব্রুয়ারি) ২৪ ঘণ্টায় দেশে আরও ৩১ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে করোনায় মোট মৃত্যুর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২৮ হাজার ৪২৫ জনে। একই সময়ে নতুন করে করোনা শনাক্ত হয়েছে ১৩ হাজার ১৪৫ জনের। এ পর্যন্ত মোট শনাক্ত রোগীর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১৮ লাখ ১১ হাজার ৯৮৭ জনে।

এ অবস্থায় স্বাস্থ্যবিধি মেনে সবকিছু স্বাভাবিক থাকলেও গত ২১ জানুয়ারি থেকে দুই সপ্তাহের জন্য বন্ধ রাখা হয়েছে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান। তবে সংক্রমণ ঊর্ধ্বমুখীর মধ্যেও সরকারি-বেসরকারি বাকি সব অফিস খোলা। চালু আছে কলকারখানাও। চলছে স্থানীয় সরকারের বিভিন্ন নির্বাচনও। ২০২০ সালের মার্চে দেশে করোনার সংক্রমণ শুরু হলে ১৭ মার্চ বন্ধ করে দেওয়া হয় সব ধরনের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান। দফায় দফায় ছুটি বাড়িয়ে টানা ৫৪৪ দিন পর গত বছরের ১২ সেপ্টেম্বর তা খুলে দেওয়া হয়। দেড় বছরের বেশি সময় পরে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়া হলেও একসঙ্গে সব শ্রেণির ক্লাস শুরু করা যায়নি।