ঢাবিতে ‘ঘ’ ইউনিট না থাকলেও বিভাগ পরিবর্তনের সুযোগ থাকছে

ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীদের উপর থেকে বাড়তি চাপ কমাতে ২০২১-২২ শিক্ষাবর্ষ থেকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ‘ঘ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা বাতিলের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। ঘ ইউনিট না থাকলেও বিভাগ পরিবর্তনের সুযোগ পাবেন শিক্ষার্থীরা।

গতকাল সোমবার ঢাবির সাধারণ ভর্তি কমিটির সভায় ঘ ইউনিটে আলাদাভাবে ভর্তি পরীক্ষা আয়োজন না করার প্রাথমিক সিদ্ধান্ত অনুমোদন দেয়া হয়।

ঘ ইউনিট না রাখার কারণ হিসেবে ঢাবি কর্তৃপক্ষ বলছে, নিজ বিভাগের বাইরে অন্য বিভাগের বিষয় নিয়ে পড়ালেখা করতে ইচ্ছুক শিক্ষার্থীদের জন্য ঘ ইউনিটে ভর্তি পরীক্ষা আয়োজন করা হত। এতে শিক্ষার্থীদের উপর বাড়তি চাপের সৃষ্টি হত। এছাড়া ভর্তি পরীক্ষায় অংশগ্রহণের জন্য শিক্ষার্থীদের আলাদা আবেদন ফিসহ পরীক্ষা কেন্দ্রে যাতায়াত করতে টাকা খরচ হত। এই বিষয়গুলো বিবেচনায় ঘ ইউনিটে আলাদা ভর্তি পরীক্ষা বাতিল করা হয়েছে।

এ প্রসঙ্গে ঢাবি উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান বলেন, শিক্ষার্থীদের কষ্ট লাঘবে আমরা এই সিদ্ধান্ত নিয়েছি। এখন থেকে বিভাগ পরিবর্তনের জন্য শিক্ষার্থীদের আলাদা পরীক্ষা দিতে হবে না। এর পরিবর্তে নিজ বিভাগে ভর্তি পরীক্ষা দিয়েই বিভাগ পরিবর্তন করতে পারবেন শিক্ষার্থীরা।

এদিকে ঢাবির একটি সূত্র জানিয়েছে, নিজ বিভাগে ভর্তি পরীক্ষা দিয়ে অন্য বিভাগের বিষয় কীভাবে দেয়া যায় সেটি নির্ধারণে একটি ডিনস সাব কমিটি গঠন করা হয়েছে। এই কমিটিকে দ্রুত সময়ের মধ্যে তাদের মতামত দিতে বলা হয়েছে।

এ প্রসঙ্গে ঢাবি উপাচার্য বলেন, শিক্ষার্থীরা যেন সহজভাবে বিভাগ পরিবর্তনের সুযোগ পায় সেজন্য একটি কমিটি কাজ করছে। কমিটির প্রতিবেদন পাওয়ার অ্যাকাডেমিক কাউন্সিলে বিষয়টি চূড়ান্ত করা হবে।

প্রসঙ্গত, ২০২০ সালে ডিনস কমিটির এক সভায় ঘ ইউনিট বাতিলের বিষয়টি সামনে নিয়ে আসেন ঢাবি উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান। বিষয়টি আলোচনার পর অধিকাংশ ডিন উপাচার্যের এই প্রস্তাবের প্রতি সমর্থন জানান। পরে ঘ ইউনিট বাতিলের প্রাথমিক সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।