ডিনস কমিটির বৈঠক ঢাবির ঘ ইউনিট চলতি বর্ষে বহাল রাখার ‘প্রাথমিক সিদ্ধান্ত’

আলোচনা-সমালোচনার মধ্যে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদভুক্ত ঘ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা ২০২১-২২ শিক্ষাবর্ষেও চলমান রাখার সিদ্ধান্ত হয়েছে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ডিনস কমিটির সভায় নেওয়া এ সিদ্ধান্তকে ‘প্রাথমিক সিদ্ধান্ত’ বলা হচ্ছে। এ সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, ২০২২-২৩ শিক্ষাবর্ষ থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের কলা, সামাজিক বিজ্ঞান ও আইন অনুষদ একসঙ্গে ভর্তি পরীক্ষা নিতে পারে।

আজ বুধবার সকালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ডিনস কমিটির এক বিশেষ সভায় এসব প্রাথমিক সিদ্ধান্ত হয়। বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের কার্যালয়সংলগ্ন লাউঞ্জে অনুষ্ঠিত এ সভায় উপাচার্য মো. আখতারুজ্জামান সভাপতিত্ব করেন।

সভা শেষে বিশ্ববিদ্যালয়ের সহ–উপাচার্য (শিক্ষা) এ এস এম মাকসুদ কামাল প্রথম আলোকে বলেন, ‘এবারের ভর্তি-ইচ্ছুক শিক্ষার্থীদের অনেকেই ইতিমধ্যে ঘ ইউনিটের প্রস্তুতি নিয়েছেন। তাঁদের এ প্রস্তুতি, অভিভাবকদের উদ্বেগ ও সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের শিক্ষকদের চাওয়া বিবেচনায় নিয়ে ডিনস কমিটির সভায় সিদ্ধান্ত হয়েছে, এ বছর (২০২১-২২ শিক্ষাবর্ষ) ঘ ইউনিটের পরীক্ষা চলমান থাকবে। এটি প্রাথমিক একটি সিদ্ধান্ত। পরে এটি নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ ভর্তি কমিটি, একাডেমিক কাউন্সিলসহ সংশ্লিষ্ট ফোরামগুলোয় আলোচনা হবে। এরপরই তা চূড়ান্ত হবে।’

এ এস এম মাকসুদ কামাল বলেন, ‘আসন্ন ২০২১-২২ শিক্ষাবর্ষে ঘ ইউনিটের পরীক্ষা হচ্ছে। এর পর থেকে কলা, সামাজিক বিজ্ঞান ও আইন অনুষদ একসঙ্গে পরীক্ষা নেবে, এমন একটি সিদ্ধান্ত ডিনস কমিটির সভায় হয়েছে। শিক্ষার্থীরা কীভাবে বিভাগ পরিবর্তন করার সুযোগ পাবেন, কারও কোনো অপশন কার্টেইল না করে শিক্ষার্থীবান্ধব সিদ্ধান্তের মাধ্যমে সমন্বয় রাখার কথাও এতে বলা হয়েছে। এটি ডিনস কমিটির সিদ্ধান্ত।’

‘পরীক্ষার বোঝা ও ভোগান্তি কমানোর’ কথা বলে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ বিভাগ পরিবর্তন ইউনিট হিসেবে পরিচিত ঘ ইউনিট বন্ধের সিদ্ধান্ত নিয়েছে। ৭ ফেব্রুয়ারি ঘ ইউনিট বাতিলের সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নে বিভাগ পরিবর্তনের একটি নীতিমালা প্রণয়নের জন্য ডিনস সাব-কমিটিকে দায়িত্ব দেন উপাচার্য। তবে আওয়ামী লীগপন্থী শিক্ষকদের সংগঠন নীল দল ও বিএনপিপন্থী শিক্ষকদের সংগঠন সাদা দলের সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদ শাখা এ সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়েছে। এমন পরিস্থিতিতে আজ ডিনস কমিটির বিশেষ সভা ডাকা হয়। এতে ডিনস সাব-কমিটির সুপারিশ নিয়ে আলোচনা হয়।