ডায়াবেটিস রোগীদের পায়ের যত্নে করণীয়

ডায়াবেটিস আক্রান্ত রোগীদের জটিলতাগুলোর মধ্যে অন্যতম হলো পায়ে ক্ষত ও পচন বা ডায়াবেটিক ফুট৷ পায়ের যত্নে অবহেলার ফলে ডায়াবেটিস আক্রান্ত রোগীরা প্রায়ই এসব সমস্যায় ভোগেন৷ কখনও কখনও চিরতরে হারাতে হয় পা, বরণ করতে হয় পঙ্গুত্ব৷ অনেক ডায়াবেটিক রোগী পায়ের যত্নে উদাসীন এবং একটি বড় অংশ জানেনই না, কীভাবে পায়ের যত্ন নিতে হয়৷

পায়ের যত্ন

ডায়াবেটিক রোগীদের পা সুস্থ রাখতে কিছু নিয়ম অনুসরণ করতে হবে। নিচে তা তুলে ধরা হলো।

১. প্রতিদিন কুসুম গরম পানি দিয়ে দুই পা ভালোভাবে ধৌত করা।

২. আঙ্গুলের ফাঁকসহ পুরো পা ভালোভাবে মুছে নেওয়া।

৩. পায়ের উভয় পাতায় ময়েশ্চারাইজিং লোশন ব্যবহার করুণ (আঙ্গুলের ফাঁক ব্যতীত)।

৪. সর্বদা পায়ের সাইজ অনুযায়ী জুতা পরিধান করুণ৷ কখনও খালি পায়ে হাঁটবেন না৷

৫. পা উষ্ণ ও শুকনো রাখতে মোজা ব্যবহার করুন৷ জুতা পরার আগে দেখে নিন, জুতার ভিতরে কোন পাথর-নুড়ি বা অন্য বস্তু আছে কিনা এবং জুতা মসৃণ কিনা৷

৬. পায়ের নখ ছোট ও মসৃণ রাখুন৷

৭. প্রতিদিন নিজেই পা পরীক্ষা করুন৷ দেখুন কোন কাঁটা-ছেড়া, ফাটা ও ক্ষত বা ঘা আছে কিনা৷ থাকলে চিকিৎসকের পরামর্শ নিন৷

৮. পায়ের রক্ত সঞ্চালন ও কার্যক্রম স্বাভাবিক রাখতে নিয়মিত কিছু সময় হাঁটাহাটি করা, সাইকেল চালানো বা সাঁতার কাটার অভ্যাস করুন৷

৯. পায়ের যত্নে প্রতি ছয় মাস বা এক বছর পর পর চিকিৎসকের শরণাপন্ন হোন৷

এ ছাড়াও আপনি যদি পায়ে ব্যথা, পায়ের অনূভুতি হ্রাস, পায়ের ত্বকের রং বা তাপমাত্রার পরিবর্তন লক্ষ্য করেন, দ্রুত চিকিৎসকের শরণাপন্ন হোন৷