টেস্ট ক্রিকেট খেলতে না পারাটা অনেক বড় ক্ষতির: মুশি

গেল দুই দশকে টেস্ট ক্রিকেটে প্রত্যাশিত অবস্থান তৈরি করতে পারেনি বাংলাদেশ। এমন পরিস্থিতিতে এ বছর টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ম্যাচগুলো খেলতে না পারাটা অনেক বড় ক্ষতির। ভিডিও বার্তায় এমন মন্তব্য করেন টাইগার ব্যাটসম্যান মুশফিকুর রহিম। তিনি বলেন, বিশ্বমারির কারণে বর্তমান সময়টা চ্যালেঞ্জিং হলেও, সব কিছু ইতিবাচক ভাবে নেয়া উচিৎ।

টেস্ট ক্রিকেটে এক জিম্বাবুয়ে ছাড়া, আর বোধ হয় অন্য কোন দলের সঙ্গেই সাচ্ছন্দ্যবোধ করে না বাংলাদেশ। দুই দশকে ১১৯ টেস্টের পরিসংখ্যান নির্দেশ করে এমন কিছুই! অথচ যে সম্ভাবনা আর প্রত্যাশার ফানুশ উড়িয়ে অভিজাত সংস্করণে পা রেখেছিলো টাইগাররা, গল্পটা হতে পারতো অন্য রকম।

দীর্ঘ সময়েও টেস্ট ক্রিকেটে কেন পেছনের সারির ছাত্র বাংলাদেশ? এমন প্রশ্নে আসে অনেক জবাব। পর্যাপ্ত ম্যাচ খেলতে না পারাটাও যার একটি। যদিও সে আক্ষেপ ঘোচানোর সুযোগ ছিলো এ বছরের টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের সূচিতে থাকা ১০ ম্যাচ দিয়ে। কিন্তু করোনা ক্ষতি করে গেছে সেখানেও।

কোভিড সংক্রমণ থেকে রক্ষা পেতে বিসিবির গাইডলাইন মেনে ঘরেই অবস্থান টাইগারদের। সকাল বিকাল হালকা স্ট্রেচিংয়ে ঘাম ঝড়লেও ব্যাট-প্যাডগুলো অলস পড়ে আছে ব্যাগবন্দি হয়ে। যে হতাশাটা ঠিকই কুকড়ে ধরে মিস্টার ডিপেন্ডেবলকে। তারপরও তিনি ইতিবাচক।

করোনা পরিস্থিতির কারণে এখন পর্যন্ত শ্রীলঙ্কা ও নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজ স্থগিত হয়েছে বাংলাদেশের। বাকিগুলোতেও আশার সঞ্চার নেই। কেননা ক্রিকেটারদের নিরাপত্তা নিয়ে যে একবোরেই আপোষহীন বিসিবি।