চার সপ্তাহ পর মঙ্গলবার সশরীর ক্লাস ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে

করোনা সংক্রমণের ঊর্ধ্বগতির কারণে প্রায় চার সপ্তাহ ধরে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে সশরীর শ্রেণি কার্যক্রম বন্ধ আছে। আবাসিক হল খোলা রেখে ক্লাস নেওয়া হচ্ছে অনলাইনে। আগামী মঙ্গলবার থেকে সব বর্ষের সশরীর শ্রেণি কার্যক্রম ‘যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করে’ শুরু করার কথা জানিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

আজ শনিবার সকালে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানিয়েছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের জনসংযোগ দপ্তর। এর আগে ১১ ফেব্রুয়ারি বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছিল, ২২ ফেব্রুয়ারি থেকে শুধু স্নাতক (সম্মান) প্রথম বর্ষের সশরীর ক্লাস শুরু হবে। এর মধ্যে ১৭ ফেব্রুয়ারি সরকার ২২ ফেব্রুয়ারি থেকে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়ার পর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ও সবাইকে নিয়ে সশরীর ক্লাসের ঘোষণা দিল।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আজকের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে সব বর্ষের শিক্ষার্থীদের সশরীর শ্রেণিকক্ষে শিক্ষা কার্যক্রম যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করে ২২ ফেব্রুয়ারি মঙ্গলবার থেকে পুনরায় শুরু হবে। এ ছাড়া পূর্বঘোষিত রুটিনভিত্তিক পরীক্ষাগুলো চলমান থাকবে৷ বিশ্ববিদ্যালয়ের অফিসগুলোও মঙ্গলবার থেকে যথারীতি খোলা থাকবে৷

করোনা পরিস্থিতির অবনতির প্রেক্ষাপটে গত ২১ জানুয়ারি দুই সপ্তাহের জন্য হল খোলা রেখে সশরীর ক্লাস বন্ধ ঘোষণা করে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ৷ সরকার শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ছুটি আরও দুই সপ্তাহ বাড়ালে ৫ ফেব্রুয়ারি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য মো. আখতারুজ্জামান বলেন, সরকারের এই সিদ্ধান্তের সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষও আপাতত সশরীর ক্লাসে যাচ্ছে না৷ বিশ্ববিদ্যালয়ে সশরীর ক্লাস খোলা থেকে বন্ধ করা—সব পর্যায়ে সরকারের সিদ্ধান্তই ছিল বিশ্ববিদ্যালয়ের সিদ্ধান্তের ভিত্তি।