চবিতে অনলাইন ক্লাস শুরু কাল

করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের কারণে বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ থাকায় শিক্ষার্থীদের ক্ষতি পুষিয়ে নিতে আগামীকাল রবিবার (৬ সেপ্টেম্বর) থেকে অনলাইন ক্লাস শুরু হচ্ছে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে (চবি)। তবে অধিকাংশ শিক্ষার্থী গ্রামের বাড়িতে অবস্থান করায় দ্রুত গতির ইন্টারনেটের অভাবে অনলাইন ক্লাস থেকে বঞ্চিত হতে পারেন বলে শঙ্কা করা হচ্ছে। এদিকে ইন্টারনেটের খরচের ব্যাপারেও কোন সিন্ধান্ত নেয়নি কর্তৃপক্ষ।

শিক্ষার্থীরা জানিয়েছেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিকাংশ শিক্ষার্থী মধ্যবিত্ত ও নিম্ন মধ্যবিত্ত পরিবারের হওয়াতে অনলাইনে ক্লাস অংশ নিতে অনেকের স্মার্টফোনও নেই। তাছাড়া অনেক দুর্গম অঞ্চলের শিক্ষার্থীদের মোবাইল নেটওয়ার্কই ঠিকমতো পৌঁছায়না। যার ফলে তারা অনলাইন ক্লাস থেকে বঞ্চিত হতে পারে বলে জানিয়েছেন। তাছাড়া অসচ্ছল শিক্ষার্থীদের অনলাইন ক্লাসের জন্য স্মার্টফোন ও ডাটা খরচ বহন করা সম্ভব হয়ে উঠবে না। ফলে এটি বৈষম্য তৈরি হবে বলে ধারণা শিক্ষার্থীদের।

চারুকলা বিভাগের ছাত্র চনুমং মারমা বলেন, আমাদের এলাকায় খুব বেশি নেটওয়ার্কের সমস্যা। এই নেটওয়ার্ক দিয়ে আমার অনলাইন ক্লাস করা কোনোভাবে সম্ভব নয়। যার ফলে আমি অনলাইন ক্লাস থেকে বঞ্চিত হওয়ার শতকরা ৮০ ভাগ সম্ভাবনা দেখছি।

বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক মো. এমদাদুল হক বলেন, অনলাইনে আমাদের ক্লাস করা উচিত। যদি কোনো সমস্যা হয় আলাপ আলোচনা করে ওভারকাম করার চেষ্টা করব। এটা সত্যি যে, শিক্ষার্থীদের বাড়িতে ডাটা থাকলেও নেটওয়ার্কের সমস্যা হচ্ছে তা বলার অপেক্ষা রাখে না। তারপরেও আমরা ক্লাস শুরু করতেছি অনলাইনে পরীক্ষা তো হচ্ছে না। আমরা ক্লাসগুলো এগোচ্ছি।

বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত) অধ্যাপক এস এম মনিরুল হাসান বলেন, আপাতত অনলাইন ক্লাস চালু করে কাজটা এগিয়ে নিতে চাই। পরবর্তীতে অবস্থায় অনুযায়ী প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

প্রসঙ্গত, গত মাসের ২০ আগস্ট তারিখে অনলাইন ক্লাস শুরুর সিদ্ধান্ত নেয় চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় (চবি) প্রশাসন। সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, আগামীকাল রবিবার থেকে অনলাইন ক্লাস শুরু হবে।