গণবিজ্ঞপ্তির ফল প্রকাশ নিয়ে যা বললেন শিক্ষা সচিব

বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ৫৪ হাজার শিক্ষক নিয়োগে গণবিজ্ঞপ্তির ফল প্রকাশ নিয়ে কিছু জটিলতা সৃষ্টি হয়েছে। বিষয়টি সমাধানে আদালতে আপিল করা হয়েছে। আদালত কি নির্দেশনা দেয় আমরা এখন সেটির দিকে তাকিয়ে আছি। আদালত থেকে নির্দেশনা না পাওয়া পর্যন্ত গণবিজ্ঞপ্তির ফল প্রকাশ করা সম্ভব হবে না।

সম্প্রতি নিজ দপ্তরে সাথে আলাপকালে এসব কথা জানান শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের সচিব মো. মাহবুব হোসেন।

তথ্যমতে, ১ থেকে ১২তম নিবন্ধনধারী আড়াই হাজার প্রার্থীকে চলতি জুন মাসে এমপিওভুক্ত বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে নিয়োগের নির্দেশ দেন হাইকোর্ট। হাইকোর্টের দেয়া রায় চ্যালেঞ্জ করে রায়ের উপর স্থগিতাদেশ চেয়ে আপিল করেছে এনটিআরসিএ। আগামী রোববার (২৭ জুন) আপিল বিভাগের পূর্ণাঙ্গ বেঞ্চে এটির শুনানি অনুষ্ঠিত হবে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, আপিল বিভাগের পূর্ণাঙ্গ বেঞ্চে শুনানি শেষে যদি আদালত ১-১২তম নিবন্ধনধারীদের নিয়োগের উপর স্থগিতাদেশ দেয় তাহলে শিগগিরই গণবিজ্ঞপ্তির ফল প্রকাশ করবে এনটিআরসিএ। তবে স্থগিতাদেশ না পেলে কি করবে এনটিআরসিএ সে বিষয়ে স্পষ্ট করে কিছুই বলছে না কর্তৃপক্ষ।

এনটিআরসিএর কর্মকর্তা বলছেন, আদালত অবমাননার যে অভিযোগ েতাদের উপর করা হয়েছে সেটির কোনো ভিত্তি নেই। কেননা ২০১৭ সালে এনটিআরসিএর নিয়োগ নিয়ে আদালত যে রায় দিয়েছিল সেটিই বাস্তবায়ন করছেন তারা। ফলে আপিল বিভাগের পূর্ণাঙ্গ বেঞ্চে ‘ল পয়েন্টে’ আলোচনায় এই বিষয়টিই আদালতকে বোঝোবেন তারা। ফলে আদালতের রায় তাদের পক্ষেই আসবে।

এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে শিক্ষা সচিব মো. মাহবুব হোসেন বলেন, আমরা এনটিআরসিএকে নিয়োগের সুপারিশ করতে বলেছি। কেননা আমাদের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে অনেক শিক্ষক সংকট রয়েছে। তবে বিষয়টি এখন উচ্চ আদালতে রয়েছে। আদালতের কোনো নির্দেশনা না পাওয়া পর্যন্ত আমরা এই বিষয়ে কিছুই করতে পারবো না।

শিক্ষা সচিব আরও বলেন, চাকরিপ্রত্যাশী ৫৪ হাজার প্রার্থীর মনের অবস্থা সম্পর্কে আমরা বুঝি। আমরাও চাই তারা নিয়োগ পেয়ে দেশের সেবা করুক। তবে আদালতের বাইরে আমাদের কারো কিছু করার এখতিয়ার নেই।