ক্ষমতা হারাতে চলেছেন ইমরান খান!

জোটসঙ্গী এমকিউএমপি বিরোধীদল পিপিপির সঙ্গে হাত মেলানোয় পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের ক্ষমতায় টিকে থাকার লড়াই আরও কঠিন রূপ নিয়েছে। বিরোধীদের সংখ্যা বেড়ে চলায় অনাস্থা প্রস্তাবের খড়গ থেকে ইমরান খানের বেরিয়ে আসার পথ ঘোর সংকটের মুখে পড়ল। এর ফলে ইমরান খান ক্ষমতা হারাচ্ছেন বলে জল্পনা শুরু হয়েছে।

মঙ্গলবার মধ্যরাতে বিরোধীদল পাকিস্তান পিপলস পার্টির সঙ্গে সমঝোতা করায় ইমরানের দল ক্ষমতাসীন পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফ-পিটিআইয়ের অন্যতম জোটসঙ্গী মুত্তাহিদা কউমি মুভমেন্ট পাকিস্তান-এমকিউএমপি।

পিপিপির চেয়ারম্যান বিলাওয়াল ভুট্টো জারদারি বলেছেন, তার দলের সঙ্গে ঐক্যবদ্ধ বিরোধীরা এবং এমকিউএমের সমঝোতা হয়েছে। বৃহস্পতিবার এ বিষয়ে সংবাদ সম্মেলন করে ঘোষণা দেওয়া হবে।

ইমরানের জোটসঙ্গী এমকিউএমপি গাঁটছাড়া হওয়ায় এখন পাকিস্তানে ঐক্যবদ্ধ বিরোধী গোষ্ঠীর সংখ্যা ১৭৭ জনে পৌঁছেছে। অন্যদিকে ১৭৯ জন নিয়ে ক্ষমতায় আসা ইমরানের জোটের সদস্য সংখ্যা কমে দাঁড়িয়েছে ১৬৪।

বিরোধীদের এই ঐক্যবদ্ধতায় সংসদের নিম্নকক্ষ জাতীয় পরিষদে ইমরানের দল পিটিআই সংখ্যাগরিষ্ঠতা হারিয়েছে। ইমরান খানের সরকারের বিরুদ্ধে অনাস্থা প্রস্তাব অথবা অনাস্থা ভোটের আগে বিরোধীদের এই একাট্টা হওয়ার ঘটনা ইমরানের ক্ষমতার পথকে আরও কঠিন করে তুলল।

৩৪২ সদস্য নিয়ে পাকিস্তানের জাতীয় পরিষদ গঠিত। অনাস্থা ভোটে জিততে সমর্থন প্রয়োজন কমপক্ষে ১৭২ সদস্যের। ঐক্যবদ্ধ বিরোধী গোষ্ঠীর সংখ্যা ১৭৭ জনে পৌঁছায় ইমরান খানকে ক্ষমতাচ্যুত করা সহজ হয়ে গেল পিপিপি নেতৃত্বাধীন বিরোধীদের।