ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার সিদ্ধান্তের উপর টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ভাগ্য

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ভাগ্য নির্ভর করছে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার সিদ্ধান্তের উপর। তবে এ সিদ্ধান্ত নেয়া খুব কঠিন। মনে করেন কিংবদন্তি ক্রিকেটার শচীন টেন্ডুলকার। মোহাম্মদ আজহারউদ্দিন ও হরভাজন সিংয়ের মতে, ইংল্যান্ড-ওয়েস্টইন্ডিজ সিরিজ সফল হলে ভাগ্য খুলে যেতে পারে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের। লালা ব্যবহার নিষিদ্ধ হওয়ায় বলের ঔজ্জ্বল্য বাড়ানো নিয়ে চিন্তিত ভারতীয় বোলার মোহাম্মদ শামি, কুলদীপ যাদব ও যুজবেন্দ্র চাহাল। বিকল্প উপায় বের করতে আইসিসি’র প্রতি আহবান টেন্ডুলকারের।

কোভিড নাইনটিন পাল্টে দিচ্ছে বহু দিনের রীতি নীতিও। খাপ খাইয়ে নিতে হচ্ছে পরিবর্তিত পরিস্থিতির সঙ্গে। ক্রিকেটের নিয়ম কানুন নিয়েও ভাবতে হচ্ছে আইসিসিকে। এরইমধ্যে স্বাস্থ্যঝুকি মাথায় নিয়ে বলের ঔজ্জ্বল্য বাড়াতে লালা ব্যবহার নিষিদ্ধ করা হয়েছে। কিন্তু কোনো সমাধানের কথা না বলায় একের পর অসন্তোষ দেখা যাচ্ছে ক্রিকেটারদের দিক থেকে। সে তালিকায় এবার নাম লেখালেন কিংবদন্তি শচিন টেন্ডুলকার।

শামি-চাহাল-কুলদ্বিপরা রীতিমত চিন্তিত। বল সুইং করাবেন কিভাবে? তারা একটা সমাধানের দিকে তাকিয়ে আছেন।

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ হবে কি হবেনা। এটাই ক্রিকেটাঙ্গনের সবচেয়ে বড় প্রশ্ন। সিদ্ধান্ত নিতে পারছেনা খোদ নিয়ন্ত্রক সংস্থা আইসিসি। শচিন টেন্ডুলকার বলছেন, বল ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার কোর্টে। তবে সিদ্ধান্ত নেয়া কঠিন। আজহার উদ্দিন ও হরভাজন সিংয়ের মতে, ইংল্যান্ড-ওয়েস্টইন্ডিজ সিরিজ সফল হলে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ভাগ্য খুলে যেতে পারে।

আইপিএল নিয়ে ভিন্নমত আছে ভারতীয় ক্রিকেটারদের মধ্যে। শচিন টেন্ডুলকার মনে করেন, আইপিএল হওয়া না হওয়া নির্ভর করছে ভারতের নাগরিকদের উপর। সবাই নিয়ম কানুন ভালোভাবে পালন করলেই তবে সুযোগ তৈরী হবে। মোহাম্মদ আজহার উদ্দিন মনে করেন, এবছর আইপিএল হওয়া আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের জন্য খুব গুরুত্বপর্ণ। হরভাজন সিং ও সুরেশ রায়নার মতো, পুরোপুরি নিরাপদ না হওয়া পর্যন্ত আইপিএল আয়োজন ঠিক হবেনা।