কার্ডিফে অস্ট্রেলিয়া বধের ১৫ বছর পূর্ণ হলো আজ

ওয়ানডে ক্রিকেটে বাংলাদেশের নতুন দিগন্তের সূচনা হয় ১৯৯৭ সালে, আইসিসি ট্রফি জয়ের মধ্য দিয়ে। এরপর ১৯৯৯ সালের বিশ্বকাপে পাকিস্তানকে হারানোর মধ্যে দিয়ে টাইগাররা জানান দেয় বিশ্ব ক্রিকেটে নতুন এক পরাশক্তির আগমনের। পরে ২০০৫ সালে তখনকার বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন অস্ট্রেলিয়াকে হারিয়ে ঐতিহাসিক এক জয় তুলে নেয় বাংলাদেশ।

আজ সেই ঐতিহাসিক জয়ের ১৫ বছর পূর্ণ হলো। ২০০৫ সালের ১৮ জুন এসেছিলো এই জয়টি। মোহাম্মদ আশরাফুলের দুর্দান্ত এক সেঞ্চুরির উপর ভর করে রিকি পন্টিংয়ের অস্ট্রেলিয়াকে ৫ উইকেটে হারিয়েছিল হাবিবুল বাশারের বাংলাদেশ।

ন্যাটওয়েস্ট সিরিজের সেই ম্যাচে কার্ডিফের সোফিয়া গার্ডেন্সে টস জিতে আগে ব্যাট করতে নামে অস্ট্রেলিয়া। ৯ রানে অ্যাডাম গিলক্রিস্ট ও পন্টিংকে প্যাভিলিনে ফেরত পাঠিয়ে শুরুতেই অজি শিবিরে চাপ তৈরি করে বাংলাদেশ। টাইগারদের নিয়ন্ত্রিত বোলিংয়ের সামনে ম্যাথু হেইডেন ও মাইকেল ক্লার্কের দায়িত্বশীল ব্যাটিংয়ে ৫ উইকেটে ২৪৯ রান করে অস্ট্রেলিয়া। তাপস বৈশ্য নেন ৩ উইকেটে।

২৫০ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে ৭২ রানে ৩ উইকেট হারালেও জয়ের স্বপ্ন দেখতে থাকে বাংলাদেশ। সেটা আরও জোরালো হয় চতুর্থ উইকেটে বাশার ও আশরাফুলের ব্যাটে। ১৩০ রানের জুটি গড়ে টাইগারদের ঐতিহাসিক জয়ের স্বপ্নটাকে আরও রঙিন করে তোলেন এই দুই ব্যাটসম্যান। বাশার ৪৭ রানে আউট হলেও আশরাফুল তুলে নেন সেঞ্চুরি।

ঠিক ১০০ রান করে দলের জয় থেকে ২৩ রান দূরে থাকতে আউট হন আশরাফুল। এরপর আফতাব আহমেদের ১৩ বলে ২৩ রানের ঝড়ো ইনিংসে ভর করে ৫ উইকেটের ঐতিহাসিক জয় তুলে নেয় টাইগাররা।

দুর্দান্ত সেঞ্চুরির কারণে সেই ঐতিহাসিক জয়ের ম্যাচ সেরার পুরস্কার ওঠেছিল আশরাফুলের হাতে।