করোনা পরিস্থিতি উন্নতি না হলে অনলাইনে হবে ঢাবি’র পরীক্ষা

করোনা ভাইরাস (কোভিড-১৯) মহামারি পরিস্থিতির উন্নতি না হলে আপদকালীন ব্যবস্থা হিসেবে আগামী ১ জুলাই থেকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের সেমিস্টার ফাইনাল পরীক্ষাসহ সকল পরীক্ষা অনলাইনে অনুষ্ঠিত হবে। তবে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে প্রচলিত নিয়মে সশরীরে পরীক্ষা কার্যক্রম পরিচালিত হবে।

বৃহস্পতিবার (৬ মে) ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামানের সভাপতিত্বে একাডেমিক কাউন্সিলের এক ভার্চুয়াল সভায় এই সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

সভায় কৌশলগত কারণে প্রতিটি কোর্সকে একাধিক ভাগে ভাগ করে বিভিন্ন ধরন/পদ্ধতিতে পরীক্ষা (যেমন: বর্ণনামূলক সংক্ষিপ্ত আকারে, এমসিকিউ, কুইজ, এসাইনমেন্ট এবং ওপেনবুক পরীক্ষা) নেয়ার সিদ্ধান্ত হয়। পরীক্ষার সময় ও পূর্ণমান কমানো হবে, তবে মূল্যায়নকৃত ফলাফলকে প্রচলিত পূর্ণমানে রূপান্তর করে চূড়ান্ত ফলাফল তৈরি করা হবে। ক্রেডিট অপরিবর্তিত থাকবে। এছাড়া কম্পিউটারভিত্তিক ব্যবহারিক পরীক্ষাসমূহ অনলাইনে নেয়া হবে। অন্যান্য ল্যাব-ভিত্তিক ব্যবহারিক পরীক্ষা যথাযথ নিয়মে স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করে গ্রহণ করা হবে।

সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী অনুষদের ডিনবৃন্দ ও ইনস্টিটিউটের পরিচালকগণ অনলাইনে পরীক্ষা গ্রহণের জন্য নিজ নিজ একাডেমিক ঘরানার পরীক্ষা ও প্রশ্নের ধরণ নির্ধারণ করে একটি গাইডলাইন তৈরি করবেন। তাঁরা আগামী ২ সপ্তাহের মধ্যে এই গাইডলাইন প্রো-ভাইস চ্যান্সেলর (শিক্ষা)-এর নিকট প্রেরণ করবেন।

সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী অনুষদের ডিনবৃন্দ ও ইনস্টিটিউটের পরিচালকগণ অনলাইনে পরীক্ষা গ্রহণের জন্য নিজ নিজ একাডেমিক ঘরানার পরীক্ষা ও প্রশ্নের ধরণ নির্ধারণ করে একটি গাইডলাইন তৈরি করবেন। তাঁরা আগামী ২ সপ্তাহের মধ্যে এই গাইডলাইন প্রো-ভাইস চ্যান্সেলর (শিক্ষা)-এর নিকট প্রেরণ করবেন।

সভায় প্রো-ভাইস চ্যান্সেলর (প্রশাসন) অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ সামাদ, প্রো-ভাইস চ্যান্সেলর (শিক্ষা) অধ্যাপক ড. এ এস এম মাকসুদ কামাল, বিভিন্ন অনুষদের ডিন, বিভাগীয় চেয়ারম্যানবৃন্দ, ইনস্টিটিউটের পরিচালকবৃন্দসহ একাডেমিক কাউন্সিলের সদস্যবৃন্দ সংযুক্ত ছিলেন।