করোনা: এবার মুখে খাওয়ার ওষুধ আসছে

করোনাভাইরাস প্রতিরোধে ওষুধ উৎপাদনকারী মার্কিন প্রতিষ্ঠান ফাইজার পরীক্ষামূলকভাবে মুখে খাওয়ার উপযোগী ওষুধ আবিষ্কার করেছে। ওষুধটি এ বছরের শেষদিকে বাজারে পাওয়া যাবে বলে জানানো হয়েছে।

বুধবার (২৮ এপ্রিল) সিএনবিসি নিউজের প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।

ফাইজারের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) আলবার্ট বোরলা বলেন, যদি ক্লিনিক্যাল ট্রায়াল সফলভাবে শেষ হয় এবং ওষুধ প্রশাসন এটিকে অনুমোদন করে তাহলে ওষুধটি এ বছরই সহজলভ্য হবে।

স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা বলছে, মুখে খাওয়া ওষুধটি গেম চেঞ্জার হতে পারে। কারণ হাসপাতালের বাইরে নতুন আক্রান্ত লোকেরা তা বাইরে খেতে পারবে। এর জন্য আলাদা করে হাসপাতালে যেতে হবে না।

গবেষকরা আশা করেন, ওষুধটি করোনা বৃদ্ধিরোধে হাসপাতালে রোগীদের ভিড় এড়াতে সাহায্য করবে।

ওষুধ ছাড়াও ফাইজার ভ্যাকসিন এখনও ছয় মাস থেকে ১১ বছর বয়সী শিশুদের ওপর পরীক্ষা করা হচ্ছে।

জনস্বাস্থ্য কর্মকর্তা ও সংক্রামক রোগ বিশেষজ্ঞরা বলছেন, করোনভাইরাস মহামারির অবসান ঘটাতে শিশুদের টিকা দেওয়া অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।

এই মাসের শুরুর দিকে, সংস্থাটি একটি গবেষণায় ১২ থেকে ১৫ বছর বয়সী কিশোর-কিশোরীদের ওপর ভ্যাকসিন প্রয়োগে সফল হয়।

নতুন আবিষ্কৃত মুখে খাওয়ার এই ওষুধেও আশাবাদী সিইও আলবার্ট বোরলা।

ফাইজার ও জার্মান প্রতিষ্ঠান বায়োএনটেক যৌথভাবে করোনাভাইরাসের টিকা তৈরি করেছে। এরই মধ্যে যুক্তরাজ্য, যুক্তরাষ্ট্রসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশে চলছে এই টিকার প্রয়োগ।