কন্ট্রোল রুম থেকে সরিয়ে ডা. আয়েশাকে এনসিডিসিতে বদলি

এক যুগেরও বেশি সময় ধরে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের কন্ট্রোল রুমে দায়িত্ব পালন করে আসা ডা. আয়েশা আক্তারকে সরিয়ে অসংক্রামক ব্যাধি নিয়ন্ত্রণ (এনসিডিসি) শাখায় বদলি করা হয়েছে। সেখানে তাকে প্রোগাম ম্যানেজারের দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। আর তার পরিবর্তে কন্ট্রোল রুমের দায়িত্ব দেয়া হয়েছে অধিদপ্তরের এমআইএস (ম্যানেজমেন্ট ইনফরমেশন সিস্টেম) শাখার কর্মকর্তাদের।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আবুল বাশার মোহাম্মদ খুরশীদ আলমের মৌখিক নির্দেশেই তিনি ওই দায়িত্ব থেকে সরে যাচ্ছেন বলে জানা গেছে।

ডা. আয়েশা আক্তার এর আগে রানা প্লাজা দুর্ঘটনা, ঘূর্ণিঝড় মহাসেন, ফণী, আইলা, আম্ফান, বনানী ও চকবাজারের অগ্নিকাণ্ড, কক্সবাজারের রোহিঙ্গা শরণার্থী সংকট এবং সর্বশেষ দেশে করোনাভাইরাস পরিস্থিতি নিয়ে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের কর্মকাণ্ড তুলে ধরেছেন।

গণমাধ্যম কথা বলতে অনুমতি লাগবে স্বাস্থ্য ডিজির:

গণমাধ্যমকে সাক্ষাৎকার দেওয়া, কথা বলা ও টকশোতে অংশগ্রহণ করতে হলে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালকের (ডিজি) অনুমতি লাগবে। একই সঙ্গে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের পরিচালক পর্যায়ের কর্মকর্তারই শুধুমাত্র এসব অনুষ্ঠানে অংশ নিতে পারবেন। শুক্রবার (২১ আগস্ট) স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের পাঠানো এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানানো হয়।

এতে বলা হয়, বিভিন্ন প্রচারমাধ্যমে স্বাস্থ্য বিভাগের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তারা মুখপাত্র হিসেবে অনুষ্ঠানে অংশ নেন এবং প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধিত্ব করেন। নিয়মিত ব্রিফিং ছাড়া এ সকল অনুষ্ঠানের বক্তব্য ও মন্তব্যের কারণে অনেক সময় সরকারকে বিব্রত হতে হয়।

এ অবস্থায় প্রচারমাধ্যমে সরকারের প্রতিনিধিত্ব করার বিষয়ে যথাযথ বিধি-বিধান থাকা উচিত। এখন থেকে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের পক্ষে বিভিন্ন অনুষ্ঠানে সাক্ষাৎকার প্রদান, অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণের আগে অধিদপ্তরের মহাপরিচালকের অনুমতি নিতে হবে।