কখন খুলবে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, জানালেন মাউশি মহাপরিচালক

করোনাভাইরাসের কারণে দীর্ঘ প্রায় ১৪ মাস ধরে বন্ধ রয়েছে দেশের সব ধরনের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান। সরকারের সর্বশেষ সিদ্ধান্ত অনুযায়ী আগামী ১৬ মে পর্যন্ত লকডাউন থাকবে। তবে এরপর আরও এক সপ্তাহ বাড়তে পারে লকডাউন। এদিকে সরকারের সিদ্ধান্ত মোতাবেক আগামী ২২ মে পর্যন্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকবে। তবে ২৩ মে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলা না গেলে শিক্ষার্থীদের শিক্ষা কার্যক্রম চলবে ভিন্ন মাধ্যমে।

সংশ্লিষ্টরা বলছেন, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকলেও লকডাউনের পর অ্যাসাইনমেন্ট কার্যক্রম শুরু হবে। এছাড়া করোনা সংক্রমণ পাঁচ শতাংশের নিচে নামলে এসএসসি ও এইচএসসি এবং সমমানের পরীক্ষার্থীদের সংক্ষিপ্ত সিলেবাসে ক্লাস শুরু হবে। পাশাপাশি অনুকূল পরিস্থিতি অব্যাহত থাকলে অন্যান্য শ্রেণির ক্লাসও শুরু হবে।

এ প্রসঙ্গে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদফতরের (মাউশি) মহাপরিচালক অধ্যাপক ড. সৈয়দ মো. গোলাম ফারুক গণমাধ্যমকে বলেছেন, ‘করোনার সংক্রমণ পাঁচ শতাংশের নিচে নামলে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান সীমিত আকারে খুলে দেওয়া হবে। এরপর এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষার জন্য সংক্ষিপ্ত সিলেবাস শুরু হবে। আর অন্যান্য ক্লাসও পর্যায়ক্রমে শুরু করা হবে।’

লকডাউন শেষে অ্যাসাইনমেন্ট শুরু হবে জানিয়ে তিনি বলেন, ‘আগের যে অ্যাসাইনমেন্ট জমা আছে, সেগুলো যাচাই-বাছাই করা হবে। এগুলো যাচাই-বাছাইয়ে একটা ধারণা পাবো আমরা। এর থেকে নতুন নির্দেশনা প্রয়োজনে দিতে পারবো। আমরা ডাটাও সংগ্রহ করছি। শিক্ষার্থীর সমস্যা চিহ্নিত করে তা সমাধানের ব্যবস্থা করা হবে। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকায় শিক্ষার্থীদের যে গ্যাপ তৈরি হয়েছে তা পূরণের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলেও জানান তিনি।

গত বছরের ১৭ মার্চ থেকে দেশের সব ধরনের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রয়েছে। সর্বশেষ দফায় এ ছুটি বড়িয়ে আগামী ২২ মে পর্যন্ত করা হয়েছে। তবে এখনো করোনা সংক্রমণ ঊর্ধ্বমুখী থাকায় এ সময়েও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলা নিয়ে অনিশ্চয়তা তৈরি হয়েছে।