‘ও’-‘এ’ লেভেল পরীক্ষার অনুমতি, করোনায় আক্রান্ত হলে দায় ব্রিটিশ কাউন্সিলের

আগামী ১ অক্টোবর থেকে ইংলিশ মিডিয়াম স্কুলের ‘ও’ এবং ‘এ’ লেভেলের পরীক্ষা নেয়ার অনুমতি দিয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। তবে কোন শিক্ষার্থী নভেল করোনাভাইরাস আক্রন্ত হলে তার দায় ব্রিটিশ কাউন্সিলকেই নিতে হবে বলে শর্ত দিয়েছে মন্ত্রণালয়।

সম্প্রতি শিক্ষা মন্ত্রণালয় ৪ দফা শর্তে ২৩ নভেম্বর পর্যন্ত এ পরীক্ষা নেয়ার অনুমতি দেয় ব্রিটিশ কাউন্সিলকে।

শর্তগুলো হলো- স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের স্বাস্থ্যবিধি ও ডব্লিউএইচও এর গাইডলাইন কঠোরভাবে অনুসরণ করতে হবে; আবেদন মোতাবেক সারাদেশে ৩৫টি ভেন্যুতে প্রতিদিন সর্বমোট এক হাজার ৮শ শিক্ষার্থীর বেশি পরীক্ষা নেওয়া যাবে না এবং প্রতিজন শিক্ষার্থীকে কমপক্ষে ৬ ফুট দূরত্বে বসাতে হবে; পরিস্থিতি বিবেচনায় যেকোনো সময় সরকার জনস্বার্থে পরীক্ষা নেওয়ার অনুমতি বাতিল করতে পারে; পরীক্ষা চলাকালীন কোনো পরীক্ষার্থী কোভিড-১৯ এ আক্রান্ত হলে ব্রিটিশ কাউন্সিলকে এর দায়-দায়িত্ব বহন করতে হবে।

সংশ্লিষ্টদের কাছ থেকে জানা গেছে, শিক্ষার্থীদের অক্টোবর-নভেম্বর ২০২০ সিরিজ-এ পরীক্ষা দিতে প্রায় ৫ হাজার ২০০ শিক্ষার্থী গত জুলাই-আগস্ট মাসে রেজিস্ট্রেশন করেছে। এই পরীক্ষায় আর্ট এবং ডিজাইন সংক্রান্ত কোয়ালিফিকেশন ছাড়া, ইউকে এক্সাম বোর্ড শুধু পরীক্ষার ভিত্তিতেই পরীক্ষার্থীদের মূল্যায়ন করবে। আর ব্রিটিশ কাউন্সিল এ পরীক্ষার আয়োজন করবে।

এর আগে গত ২৪ সেপ্টেম্বর ইংলিশ মিডিয়াম স্কুলের ‘ও’ লেভেল এবং ‘এ’ লেভেল পরীক্ষা গ্রহণের ঘোষণা দেয় ব্রিটিশ কাউন্সিল। ঘোষণার পর করোনা পরিস্থিতির মধ্যে ‘ও’ লেভেল এবং ‘এ’ লেভেল পরীক্ষা বাতিলে প্রধামন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করে মানববন্ধন করেছিল শিক্ষার্থীরা। তারা ক্লাস মূল্যায়নের মাধ্যমে গ্রেড পয়েন্ট দেওয়ার দাবি জানিয়ে ওইদিনই রাজধানীর ক্রাইম রিপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশনে (ক্রাব) এক সংবাদ সম্মেলন করেছে।

এদিকে, আজ রবিবার ‘ও’ লেভেল এবং ‘এ’ লেভেল পরীক্ষার কার্যক্রম স্থগিত চেয়ে হাইকোর্টে রিট আবেদন করেছে একজন শিক্ষার্থী। হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় ‘এ’ লেভেল পরীক্ষার্থী তামান্না তাবাসসুম কবিরের পক্ষে অ্যাডভোকেট মনিরুজ্জামান লিংকন এই রিট দায়ের করেন। রিটে তামান্না তাবাসসুম জানান, চলমান কোভিড-১৯ মহামারিতে গত ছয় মাস তাদের ক্লাস বন্ধ থাকায় পরীক্ষার প্রস্তুতি নিতে পারেনি।