এ বছরও হচ্ছে না এশিয়া কাপ

গত বছর পাকিস্তানে টুর্নামেন্টটা হওয়ার কথা ছিল। করোনাভাইরাস তা হতে দেয়নি। সে সময় টুর্নামেন্টটা স্থগিত করে এ বছরে শ্রীলঙ্কায় আয়োজিত হবে বলে ঠিক করে রাখা ছিল। কিন্তু আরেকবার এশিয়া কাপের শত্রু হয়ে হাজির হলো করোনা। এ বছরও হচ্ছে না এশিয়া কাপ!

শ্রীলঙ্কার ক্রিকেট বোর্ডের প্রধান নির্বাহী অ্যাশলি ডি সিলভাকে উদ্ধৃত করে সংবাদ সংস্থা এএফপি লিখেছে এ খবর। ‘বর্তমান অবস্থার কারণে এ বছরের জুনে টুর্নামেন্টটা আয়োজন করা সম্ভব নয়’—সাংবাদিকদের বলেছেন অ্যাশলি ডি সিলভা। টুর্নামেন্টটা আবার কখন হতে পারবে তা নিয়েও আছে শঙ্কা।

এএফপি জানাচ্ছে, অ্যাশলি ডি সিলভা সাংবাদিকদের বলেছেন যে এই টুর্নামেন্ট ২০২৩ সালের ওয়ানডে বিশ্বকাপের আগে হওয়ার সম্ভাবনা প্রায় নেই বললেই চলে। প্রসঙ্গত, এ বছরের অক্টোবরে ভারতে অনুষ্ঠেয় টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের কথা মাথায় রেখে এবার এশিয়া কাপও টি-টোয়েন্টি সংস্করণে হওয়ার কথা ছিল।

করোনার সংক্রমণ এ অঞ্চলে কয়েক মাস ধরেই অনেক বেড়ে চলেছে। করোনাবিষয়ক সর্বশেষ তথ্য সরবরাহ করা ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডোমিটার অনুযায়ী, করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে কেঁপে যাওয়া ভারতে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন প্রায় ১ লাখ মানুষ, মারা গেছেন এক হাজারেরও বেশি।

বাংলাদেশে ঈদের কিছুদিন আগেও করোনার দ্বিতীয় ঢেউ চলছিল, মাঝে ঈদের ছুটির সময়ে সংক্রমণ কিছুটা কমলেও দুদিন ধরে করোনায় সংক্রমণ ও মৃত্যু আবার বাড়ছে। আক্রান্তের হারও আগের দিনের চেয়ে বেড়েছে। পাকিস্তানে গত ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্ত হয়েছেন সোয়া ৩ হাজারের বেশি, মৃত্যু ১০০-র বেশি।

আর আয়োজক শ্রীলঙ্কা? করোনার শুরুর দিকে পরিস্থিতি দারুণভাবে নিয়ন্ত্রণ রাখা শ্রীলঙ্কায়ও কয়েক মাস ধরে আক্রান্ত ও মৃত্যুর হার শুধু বেড়েই চলেছে। গ্রাফ উঠে চলেছে ওপরের দিকে। গত অক্টোবরের পর থেকেই আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে দ্বীপ দেশটিতে, মৃত্যুর সংখ্যা বছরের শুরুর দিকে কম থাকলেও গত এক মাসে আবার বেড়েছে। আজই শ্রীলঙ্কা বিমানে করে তাদের দেশে মানুষের প্রবেশে দশ দিনের নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে।

করোনার পাশাপাশি দলগুলোর ঠাসা সূচিও এশিয়া কাপ পেছানোতে বড় ভূমিকা রেখেছে কি না, প্রশ্ন বটে। জুনে এশিয়া কাপ ভারতের টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালের সূচির সঙ্গে সাংঘর্ষিক। লর্ডসে ১৮ থেকে ২২ জুন টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালে খেলার কথা বিরাট কোহলির দলের। সে কারণে কোহলিদের টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালে পাঠিয়ে ভারত দ্বিতীয় সারির দল এশিয়া কাপে পাঠাবে বলে শোনা যাচ্ছিল।

সূচিজটের কারণেই এশিয়া কাপ পরে আবার কবে হতে পারবে, তা নিয়ে শঙ্কা আছে। অ্যাশলি ডি সিলভা জানিয়েছেন, আগামী দুই বছরে কে কোথায় খেলবে, সে সূচি প্রায় সব দলেরই চূড়ান্ত হয়ে আছে। সে কারণেই ২০২৩ ওয়ানডে বিশ্বকাপের আগে আর এশিয়া কাপ হওয়ার সম্ভাবনা তিনি দেখছেন না।

শ্রীলঙ্কা দল এই মুহূর্তে তিন ওয়ানডের সিরিজ খেলতে বাংলাদেশে এসেছে। ২৩ মে থেকে শুরু হবে সিরিজটি।