একই মামলা একাধিক ভার্চুয়াল কোর্টে দাখিল নয়

একই বিষয়ে একই মামলা দুই-তিনটি কোর্টে যেন দাখিল করা না হয় সে বিষয়ে বিজ্ঞপ্তি জারি করতে সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সম্পাদককে নির্দেশ দিয়েছেন ভার্চ্যুয়াল হাইকোর্ট।

আজ বৃহস্পতিবার (২৫ জুন) বিচারপতি জাহাঙ্গীর হোসেনের ভার্চ্যুয়াল হাইকোর্ট বেঞ্চ এ নির্দেশ দেন।

ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল ড. মো. বশির উল্লাহ গণমাধ্যমকে আদেশের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

ড. মো. বশির উল্লাহ বলেন, লক্ষ্য করা গেছে কয়েকজন আইনজীবী একই বিষয়ে একই মামলা বিভিন্ন ভার্চ্যুয়াল কোর্টে দাখিল করে থাকেন। যার ফলে একটি মামলা একটি কোর্টে শুনানি হওয়ার পরও অন্য একটি বেঞ্চে শুনানির তাগিদ দেওয়া হয়।

তিনি বলেন, আবার লক্ষ্য করা গেছে একটি মামলায় একটি বেঞ্চ নির্দেশ দিয়েছেন সেটিকে নিয়মিত বেঞ্চে (কোর্ট খোলার পর) উত্থাপন করবার, কিন্তু সেই তথ্য গোপন করে কেউ কেউ এ মামলা অন্য বেঞ্চে দাখিল করেন। ফলে বিভিন্নরকম অসুবিধার সম্মুখীন হতে হয়।

ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল বলেন, এ কারণেই বিচারপতি জাহাঙ্গীর হোসেন আজকে সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সম্পাদককে আদেশ দিয়েছেন একটি বিজ্ঞপ্তি দেওয়ার জন্যে। যাতে করে এ ধরনের কার্যক্রম বন্ধ হয়। বিশেষ করে একই মামলা দুই-তিনবার যাতে পাঠানো না হয়। একই মামলা দুই-তিন কোর্টে যেন দাখিল করা না হয়। এবং একটি কোর্টে আদেশ হয়ে গেলে সেটিকে গোপন করে আবার আরেকটি কোর্টে যাতে পাঠানো না হয় বা উত্থাপন করা না হয়।

এর আগে, গত ২ জুন ভার্চ্যুয়াল আদালতে মামলা কার্যতালিকায় তালিকায় (কজ লিস্ট) আসা বা না আসা নিয়ে ফেসবুকে বিভ্রান্তিকর ও তথ্যবিহীন স্ট্যাটাস এবং মন্তব্য করার বিষয়ে সতর্ক করেন হাইকোর্ট।

হাইকোর্টের বিচারপতি জাহাঙ্গীর হোসেনের ভার্চ্যুয়াল বেঞ্চে সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সভাপতি অ্যাডভোকেট এ এম আমিন উদ্দিন ও সম্পাদক ব্যারিস্টার রুহুল কুদ্দুস কাজলের ভার্চ্যুয়াল উপস্থিতিতে এসব নির্দেশনা দেন।

ভার্চ্যুয়াল কোর্টে অংশগ্রহণকারী আইনজীবীদের মাধ্যমে বিশেষ বার্তায় আদালত তার নির্দেশনায় বলেন−

১. মামলা ফাইলিংয়ের সময় লিখিত আন্ডারটেকিং ও সিগনেচার অবশ্যই দিতে হবে। সঙ্গে ই-মেইল ও বারের (সমিতির) সদস্য নম্বর উল্লেখ করতে হবে। কেননা, অনেক আবেদনে এসব তথ্য না থাকায় মামলা লিস্টে আসছে না।

২. ভার্চ্যুয়াল কোর্টে মামলা লিস্টে আসা বা না আসা নিয়ে ফেসবুকে বিভ্রান্তিকর ও তথ্যবিহীন স্ট্যাটাস এবং মন্তব্য করা থেকে বিরত থাকার জন্য সতর্ক থাকতে হবে।

প্রসঙ্গত, ভার্চ্যুয়াল কোর্টে ইমেইলযোগে সংশ্লিষ্ট বেঞ্চে মামলা দাখিল করতে হয়।