এইচএসসিতে বায়োলজি পরীক্ষা না দিয়েও মেডিকেলে আবেদনের সুযোগ

বায়োলজি বিষয়ের পরীক্ষায় না বসেও ২০২১-২২ শিক্ষাবর্ষের মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষায় আবেদনের সুযোগ পেতে যাচ্ছেন চলতি বছরের এইচএসসি ও সমমানের শিক্ষার্থীরা। এ বিষয়ে একটি খসড়া নীতিমালা তৈরি করেছে স্বাস্থ্য শিক্ষা অধিদপ্তর।

জানা গেছে, গত ২ ডিসেম্বর থেকে এইচএসসি ও সমমান পরীক্ষা শুরু হয়েছে। এ বছর তিনটি বিষয়ের উপর পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হচ্ছে। এক্ষেত্রে বিজ্ঞানের শিক্ষার্থীদের পদার্থ ও রসায়ন বিষয় বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। আর জীববিজ্ঞান অথবা উচ্চতর গণিতের মধ্যে যেকোন একটি বিষয়ের পরীক্ষা দিতে হচ্ছে। বাকি বিষয়গুলোতে জেএসসি ও এসএসসি পরীক্ষার নম্বর বিভাজন করে গ্রেড দেওয়া হবে।

স্বাস্থ্য শিক্ষা অধিদপ্তর সূত্রে জানা গেছে, এইচএসসি ও সমমান পরীক্ষায় কোনো শিক্ষার্থী যদি জীববিজ্ঞান বিষয়ের পরীক্ষায় অংশগ্রহণ নাও করেন; তবুও তিনি মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষার জন্য আবেদন করতে পারবেন। এক্ষেত্রে মার্কসীটে জীববিজ্ঞান বিষয়ের নম্বর থাকলেই হবে।

এর কারণ হিসেবে স্বাস্থ্য শিক্ষা অধিদপ্তরের কর্মকর্তারা বলছেন, করোনাভাইরাসের কারণে এবছর বিষয় কমিয়ে পরীক্ষা নিচ্ছে সরকার। জীববিজ্ঞান ও উচ্চতর গণিতের মধ্যে যেকোন একটি বিষয়ের পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে বলা হয়েছে। সরকারের এই সিদ্ধান্তের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়েই তারা এবার এই সুযোগ দিতে যাচ্ছেন।

এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে স্বাস্থ্য শিক্ষা অধিদপ্তরের পরিচালক (চিকিৎসা শিক্ষা ও জনশক্তি উন্নয়ন) অধ্যাপক ডা. এ কে এম আহসান হাবীব বলেন, আগামী বছরের মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষার জন্য আমরা কিছু খসড়া নীতিমালা তৈরি করেছি। সেটি চূড়ান্ত অনুমোদনের জন্য মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়েছে। এটি অনুমোদন হওয়ার পর এ বিষয়ে বিস্তারিত জানানো যাবে।

মার্চ-এপ্রিলে মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষা আয়োজনের চিন্তা

এদিকে আগামী বছরের মার্চ অথবা এপ্রিল মাসে ২০২১-২২ শিক্ষাবর্ষে সরকারি-বেসরকারি মেডিকেল কলেজের ভর্তি পরীক্ষা আয়োজনের চিন্তাভাবনা করছে স্বাস্থ্য শিক্ষা অধিদপ্তর।

অধিদপ্তর সূত্রে জানা গেছে, ২০২১-২২ শিক্ষাবর্ষে মেডিকেল ও ডেন্টাল কলেজে ভর্তির খসড়া নীতিমালায় কিছু পরিবর্তন আনা হয়েছে। নীতিমালাটি অনুমোদনের জন্য স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়েছে। চূড়ান্ত অনুমোদন পাওয়ার পর এটি আনুষ্ঠানিকভাবে প্রকাশ করা হবে।

সূত্র জানায়, চলতি বছরের এইচএসসি ও সমমান পরীক্ষা শেষের এক মাসের মধ্যে ফল ঘোষণা করা হবে। এরপর মেডিকেল ও ডেন্টাল ভর্তি পরীক্ষার জন্য দরপত্র আহবান করবে স্বাস্থ্য শিক্ষা অধিদপ্তর। এই প্রক্রিয়া শেষে ভর্তি পরীক্ষার তারিখ ঘোষণা করা হবে।

এ প্রসঙ্গে অধ্যাপক ডা. এ কে এম আহসান হাবীব দ্যা ডেইলি ক্যাম্পাসকে বলেন, এইচএসসি ও সমমান পরীক্ষার পর বৈঠক করে ভর্তি পরীক্ষার বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

প্রসঙ্গত, গত ২ ডিসেম্বর থেকে এইচএসসি ও সমমান পরীক্ষা শুরু হয়েছে। আগামী ৩০ ডিসেম্বর এই পরীক্ষা শেষ হবে। পরীক্ষা শেষ হওয়ার এক মাসের মধ্যে ফল ঘোষণার কথা জানিয়েছে আন্ত:শিক্ষা বোর্ড সমন্বয় সাব কমিটি।