ঈদুল-আজহা পর্যন্ত বাড়তে পারে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ছুটি

করোনা পরিস্থিতির কারণে আরোপিত বিধিনিষেধের সঙ্গে সমন্বয় করে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের সাধারণ ছুটিও বাড়ানোর চিন্তা চলছে। এই ছুটি ঈদুল-আজহা পর্যন্ত ঘোষণা করা হতে পারে। সংশ্লিষ্ট সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

সর্বশেষ ঘোষণায় ১৫ জুলাই মধ্য রাত পর্যন্ত জনসমাগমের ব্যাপারে বিধিনিষেধ আরোপ করেছে সরকার। মূলত এই নির্দেশনার সঙ্গে সমন্বয় রেখেই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে সাধারণ ছুটি বাড়ানোর চিন্তা চলছে। তবে ২০ জুলাইয়ের পর পবিত্র ঈদুল আজহা। এ কারণে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ছুটি সেই পর্যন্ত বাড়ানোর আলোচনায় আছে।

অবশ্য এ প্রসঙ্গে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের সচিব মো. মাহবুব হোসেন রোববার যুগান্তরকে বলেন, সাধারণত আমরা ছুটির ২-১ দিন আগে পরবর্তী ছুটির ব্যাপারে সিদ্ধান্ত জানিয়ে থাকি। আর এ ক্ষেত্রে সর্বশেষ সংক্রমণ পরিস্থিতি বিবেচনা ও করোনাসংক্রান্ত জাতীয় কারিগরি কমিটির পরামর্শ অনুযায়ী সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। যেহেতু এখনো আমাদের হাতে বেশ সময় আছে, তাই এ ব্যাপারে এখনই কিছু বলা যাচ্ছে না। আমরা করোনা পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করছি।

২৬ মে সংবাদ সম্মেলন করেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি এমপি। সেদিন তিনি ১৩ জুনে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়ার ইঙ্গিত দেন। ওইদিন করোনা সংক্রমণের হার ছিল রোগী পরীক্ষা অনুযায়ী ৭ শতাংশ। কিন্তু পরবর্তীতে সংক্রমণের হার বেড়েই চলেছে। পাশাপাশি সংক্রমণের আওতাও বাড়তে থাকে। এমন পরিস্থিতিতে শিক্ষা মন্ত্রণালয় ৩০ জুন পর্যন্ত ছুটি ঘোষণা করে। সর্বশেষ রোববার দেশে নমুনা পরীক্ষা বিবেচনায় শনাক্তের হার ১০ দশমিক ৭৩ শতাংশ। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (ডব্লিউএইচও) নির্দেশনা অনুযায়ী, সংক্রমণের হার ৫ শতাংশের নিচে নেমে এলে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলা যায়।