The Rising Campus
News Media
শুক্রবার, ২৭শে জানুয়ারি, ২০২৩

ইস্তাম্বুলে ৩৫০ বছরের প্রাচীন মসজিদ সংস্কারের পর উদ্বোধন

তুরস্কের ইস্তাম্বুলে প্রায় সাড়ে ৩০০ বছরের পুরনো অটোমান আমলের “ইয়েনি কামি” নামে ঐতিহাসিক একটি মসজিদ সংস্কার পরবর্তী উদ্বোধন করা হয়েছে। মসজিদটির সঙ্গে জড়িয়ে আছে তুরস্কের অটোমান আমলের স্মৃতি। ৬ বছর সংস্কার কাজ চলার পর শুক্রবার (৬ জানুয়ারি) জুমার নামাজের পর মসজিদটি উদ্বোধন করা হয়।

বিখ্যাত এই “ইয়েনি কামি” মসজিদ গালাতা সেতুর দক্ষিণ প্রান্তে গোল্ডেন হর্নে অবস্থিত। প্রতিবছর এই মসজিদে লাখ লাখ মুসল্লি ও পর্যটকের আগমন ঘটে।

ডেইল সাবাহার খবরে বলা হয়, নতুন বছরের প্রথম শুক্রবারে জুমার নামাজে অংশগ্রহণের মাধ্যমে ইয়েনি কামি মসজিদটি উদ্বোধন করেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোয়ান।

উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রেসিডেন্ট এরদোয়ান বলেন, ‘আমরা মহান আল্লাহর প্রশংসা করছি। দীর্ঘদিন সংস্কারের পর “ইয়েনি কামি” নতুন মসজিদ এখন সবার জন্য উন্মুক্ত। মসজিদসংশ্লিষ্ট সবার প্রতি থাকবে আমাদের কৃতজ্ঞতা। ঐক্য এবং সংহতিই আমাদের সবচেয়ে বড় শক্তি।’

এই সময় ইমাম হাতিপ স্কুলে পড়া অবস্থায় এখানে রাত্রিযাপনের স্মৃতিচারণা করে প্রেসিডেন্ট বলেন, ‘সেই সময় লাইলাতুল কদরে একজন আলেম এই মসজিদে খুতবা দিয়েছিলেন। সেই পবিত্র রাতে আমি তাদের সঙ্গে সময় কাটিয়েছিলাম।’ অনুষ্ঠানের শেষ পর্যায়ে পবিত্র কোরআন থেকে তিলাওয়াত করেন তিনি।

তুরস্কের সংবাদ ডেইলি সাবাহ সূত্রে জানা যায়, ১৫৯৭ সালে অটোমান সুলতান তৃতীয় মুরাদের স্ত্রী সাফিয়ে সুলতান এর মূল ভিত্তি স্থাপন করেন। ১৬৬৫ সালে চতুর্থ মেহমেদের মা হাতিস তুরহান সুলতানের অর্থায়ন ও সহায়তায় এর নির্মাণকাজ সম্পন্ন হয়। ৩৫৬ বছর ধরে মসজিদটি ছিল এই অঞ্চলের দর্শনার্থী ও পর্যটকদের প্রধান আকর্ষণ।

২০১৬ সালে মসজিদ পরিচালনা পর্ষদ তা সংস্কারের উদ্যোগ নেয়। ছয় বছর ধরে ডিরেক্টরেট জেনারেল অব ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে মসজিদের আসল আকৃতি অপরিবর্তিত রেখে উন্নয়নকাজ করা হয়। [সূত্র : ডেইলি সাবাহ]

0
You might also like
Leave A Reply

Your email address will not be published.

  1. হোম
  2. আন্তর্জাতিক
  3. ইস্তাম্বুলে ৩৫০ বছরের প্রাচীন মসজিদ সংস্কারের পর উদ্বোধন

ইস্তাম্বুলে ৩৫০ বছরের প্রাচীন মসজিদ সংস্কারের পর উদ্বোধন

তুরস্কের ইস্তাম্বুলে প্রায় সাড়ে ৩০০ বছরের পুরনো অটোমান আমলের “ইয়েনি কামি” নামে ঐতিহাসিক একটি মসজিদ সংস্কার পরবর্তী উদ্বোধন করা হয়েছে। মসজিদটির সঙ্গে জড়িয়ে আছে তুরস্কের অটোমান আমলের স্মৃতি। ৬ বছর সংস্কার কাজ চলার পর শুক্রবার (৬ জানুয়ারি) জুমার নামাজের পর মসজিদটি উদ্বোধন করা হয়।

বিখ্যাত এই “ইয়েনি কামি” মসজিদ গালাতা সেতুর দক্ষিণ প্রান্তে গোল্ডেন হর্নে অবস্থিত। প্রতিবছর এই মসজিদে লাখ লাখ মুসল্লি ও পর্যটকের আগমন ঘটে।

ডেইল সাবাহার খবরে বলা হয়, নতুন বছরের প্রথম শুক্রবারে জুমার নামাজে অংশগ্রহণের মাধ্যমে ইয়েনি কামি মসজিদটি উদ্বোধন করেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোয়ান।

উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রেসিডেন্ট এরদোয়ান বলেন, ‘আমরা মহান আল্লাহর প্রশংসা করছি। দীর্ঘদিন সংস্কারের পর “ইয়েনি কামি” নতুন মসজিদ এখন সবার জন্য উন্মুক্ত। মসজিদসংশ্লিষ্ট সবার প্রতি থাকবে আমাদের কৃতজ্ঞতা। ঐক্য এবং সংহতিই আমাদের সবচেয়ে বড় শক্তি।’

এই সময় ইমাম হাতিপ স্কুলে পড়া অবস্থায় এখানে রাত্রিযাপনের স্মৃতিচারণা করে প্রেসিডেন্ট বলেন, ‘সেই সময় লাইলাতুল কদরে একজন আলেম এই মসজিদে খুতবা দিয়েছিলেন। সেই পবিত্র রাতে আমি তাদের সঙ্গে সময় কাটিয়েছিলাম।’ অনুষ্ঠানের শেষ পর্যায়ে পবিত্র কোরআন থেকে তিলাওয়াত করেন তিনি।

তুরস্কের সংবাদ ডেইলি সাবাহ সূত্রে জানা যায়, ১৫৯৭ সালে অটোমান সুলতান তৃতীয় মুরাদের স্ত্রী সাফিয়ে সুলতান এর মূল ভিত্তি স্থাপন করেন। ১৬৬৫ সালে চতুর্থ মেহমেদের মা হাতিস তুরহান সুলতানের অর্থায়ন ও সহায়তায় এর নির্মাণকাজ সম্পন্ন হয়। ৩৫৬ বছর ধরে মসজিদটি ছিল এই অঞ্চলের দর্শনার্থী ও পর্যটকদের প্রধান আকর্ষণ।

২০১৬ সালে মসজিদ পরিচালনা পর্ষদ তা সংস্কারের উদ্যোগ নেয়। ছয় বছর ধরে ডিরেক্টরেট জেনারেল অব ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে মসজিদের আসল আকৃতি অপরিবর্তিত রেখে উন্নয়নকাজ করা হয়। [সূত্র : ডেইলি সাবাহ]

পাঠকের পছন্দ

মন্তব্য করুন