ইকুয়েডরে কারাগারে দাঙ্গায় ২২ জনের মৃত্যু

ইকুয়েডরের সবচেয়ে বড় ‍দুটি কারাগারে দাঙ্গার ঘটনায় অন্তত ২২ জন কারাবন্দি নিহত হয়েছে। এ ঘটনায় বেশ কয়েকজন পুলিশ আহত হয়েছে। চলতি বছর এটি দেশটিতে দ্বিতীয় বড় ধরনের কারা দাঙ্গার ঘটনা। খবর আল জাজিরার।

দেশটির সরকার বৃহস্পতিবার জানিয়েছে, রাজধানী কিটোর দক্ষিণে গুয়াইয়াস এবং কোটোপাক্সি প্রদেশের ‍দুটি কারাগারে এই দাঙ্গার ঘটনা ঘটেছে। তারা জানায়, সহিংসতা দমাতে সেখানে স্পেশাল পুলিশ ইউনিট পাঠাতে হয়েছে।

ইকুয়েডরের প্রেসিডেন্ট গুইলেরমো লাসসো বলেছেন, আগের সরকারগুলোর মতো আমার সরকারও দুর্বলের মতো আচরণ করবে, এমনটা ভাবলে ভুল করবে দেশকে হুমকির মুখে ঠেলে দিতে চাওয়া মাফিয়ারা।

গত মে মাসে প্রেসিডেন্ট হিসেবে শপথ নেন লাসসো। ভয়াবহ এই হামলার পর দেশের কারা ব্যবস্থা নিয়ন্ত্রণে জরুরি অবস্থা জারি করেছেন। ওই দাঙ্গার ঘটনায় কিছু পুলিশ কর্মকর্তাসহ অন্তত ৫০ জন আহত হয়েছে।

কারা ব্যবস্থাপনাকারী সংস্থা এসএনএআই জানিয়েছে, বুধবারই ওই ‍দুটি কারাগারের নিয়ন্ত্রণ নিতে সক্ষম হয়েছে এলিট বাহিনী। কোটোপাক্সি কারাগারে অন্তত ১৩ জন বন্দি নিহত হয়েছে। আর ৩৫ কারাবন্দি ও ছয় পুলিশ কর্মকর্তা আহত হয়েছে।

আর ৩১ জন বন্দির কারাগার থেকে পালানোর পরিকল্পনা ভেস্তে দিয়েছে পুলিশ এবং সেনাবাহিনী। এদিকে গুয়াইয়াস কারাগারে অন্তত ৮ জন বন্দি নিহত হয়েছে। আর তিন পুলিশ সদস্য আহত হয়েছে। ইকুয়েডরের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আলেক্সজান্ড্রা ভেলা জানিয়েছে, ৭৮ জন বন্দিকে পুনরায় আটক করা হয়েছে।