ইইউ প্রেসিডেন্টের সতর্কতা ইউরোপেও চোখ রাঙাচ্ছে করোনার ডেলটা ধরন

বিশ্বজুড়ে অধিকাংশ দেশ যখন করোনার বিরুদ্ধে লড়াই করছে, তখন ইউরোপীয় ইউনিয়নভুক্ত (ইইউ) দেশগুলোতে ৭০ শতাংশ প্রাপ্তবয়স্ক ব্যক্তি করোনার প্রথম ডোজ টিকা পেয়েছেন বলে জানিয়েছেন কমিশনের প্রেসিডেন্ট উরসুলা ভন ডার লেন।

মঙ্গলবার এক বিবৃতিতে উরসুলা ভন ডার লেন বলেন, ইইউভুক্ত ২৭টি দেশে ১৮ বছরের বেশি বয়সীদের প্রায় ৫৭ শতাংশ টিকাদান শেষ হয়েছে।

তবে কমিশনের প্রেসিডেন্ট সতর্ক করে বলেছেন, করোনার ডেলটা ধরন আরও বিপজ্জনক হয়ে উঠছে। এ কারণে ইইউভুক্ত দেশগুলোতে করোনা সংক্রমণের হার আবারও বেড়ে যেতে পারে।

সুযোগ থাকলে নিজেদের স্বাস্থ্য ও অন্যদের সুরক্ষা নিশ্চিত করার জন্য সবাইকে টিকা নেওয়ার অনুরোধ জানান তিনি। ১০ জুলাই ভন ডার লেন বলেন, গণটিকাদানের অংশ হিসেবে ইউরোপীয় ইউনিয়নের দেশগুলোতে পর্যাপ্ত টিকার সরবরাহ করা হয়েছে।

এদিকে ওয়ার্ল্ডোমিটারসের তথ্য অনুযায়ী, গতকাল পর্যন্ত বিশ্বে করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছে ১৯ কোটি ৫৫ লাখ ৪৭ হাজার ৪৬৬ জন। মৃত্যু হয়েছে ৪১ লাখ ৮৭ হাজার ৭৫ জনের। সুস্থ হয়েছেন ১৭ কোটি ৭৩ লাখ ৪৮ হাজার ১৬৭ জন।

এখন পর্যন্ত সবচেয়ে রোগী শনাক্ত ও মৃত্যু হয়েছে যুক্তরাষ্ট্রে। মৃত্যুর তালিকায় ব্রাজিল দ্বিতীয় অবস্থানে থাকলেও রোগী শনাক্তের দিক দিয়ে দেশটির অবস্থান তৃতীয়। আর রোগী শনাক্তের দিক দিয়ে দ্বিতীয় এবং মৃত্যুর দিক দিয়ে তৃতীয় অবস্থানে রয়েছে ভারত।

ওয়ার্ল্ডোমিটারসের সর্বশেষ তথ্যে একদিনে সবচেয়ে বেশি করোনা শনাক্ত হয়েছে ইন্দোনেশিয়ায়। দেশটিতে রোগী শনাক্ত হয়েছে ৪৫ হাজার ২০৩ জন। আর মৃত্যু হয়েছে ২ হাজার ৬৯ জনের।

একই সময়ে শনাক্তের তালিকায় দ্বিতীয় অবস্থানে উঠে এসেছে ইরান, দেশটিতে ৩৪ হাজার ৯৫১ জন করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছে। অপরদিকে শনাক্তের দিক দিয়ে তৃতীয় অবস্থানে রয়েছে টিকা উৎপাদনকারী দেশ রাশিয়া। দেশটিতে ২৩ হাজার ৩২ জন করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছে। একই সময়ে মারা গেছেন ৭৭৯ জন।