আসামী ধরতে গিয়ে পুলিশের উপপরিদর্শক নিহত, আহত ১

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় গ্রেফতারি পরোয়ানার মাদক মামলার আসামী ধরতে গিয়ে আসামীর ছুরিকাঘাতে আমির হোসেন নামে পুলিশের এক এএসআই নিহত হয়েছেন।

শুক্রবার (১৭ জুলাই) বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে সদর উপজেলার মাছিহাতা ইউনিয়নের চান্দপুর বাজারে এ ঘটনা ঘটে। নিহত আমির হোসেন ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর মডেল থানায় কর্মরত ছিলেন। তার বিপি নং-৮৪০৪০৬৪৭১১ তিনি ময়মনসিংহ জেলা সদরের কোতয়ালী থানার জিয়ারচর গ্রামের মনতাজ আলীর ছেলে। এ ঘটনায় মণি শঙ্কর চাকমা নামে থানার আরেক এএসআই আহত হয়েছেন। তাকে ব্রাহ্মণবাড়িয়া ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

এদিকে ঘাতক মামুনকে ধরতে মাছিহাতা ইউনিয়ন পরিষদের পক্ষ থেকে গ্রামে গ্রামে মাইকিং করে পুরস্কার ঘোষণা করা হয়েছে।

পুলিশ ও এলাকাবাসী জানান, অস্ত্র-মাদক ও ডাকাতি প্রস্তুতি মামলার গ্রেফতারি পরোয়ানাভূক্ত আসামী মামুন মিয়াকে ধরতে আজ বিকেলে সহকর্মী মণি শঙ্করকে নিয়ে অভিযানে যান সদর থানার এএসআই আমির হোসেন। চান্দপুর বাজার এলাকায় মামুনকে ধরতে গেলে তিনি ধারালো অস্ত্র দিয়ে আমির ও মণি শঙ্করের উপর আক্রমণ করেন। এ ঘটনায় গুরুতর আহত অবস্থায় আমিরকে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

এ ব্যাপারে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেনারেল হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক এ.বি.এম মুসা চৌধুরী জানান, হাসপাতালে আনার আগেই এএসআই আমিরের মৃত্যু হয়েছে। তার বুকের দুই পাশে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। ভেতরে অতিরিক্ত রক্তক্ষরণের কারণেই তার মৃত্যু হয়।

পুলিশ সুপার মুহাম্মদ আনিসুর রহমান জানান, ঘাতক মামুনকে গ্রেফতারে এলাকায় পুলিশি অভিযান চলছে। ঘটনার সাথে জরিত থাকার দায়ে একজনকে আটক করা হয়েছে। তবে তদন্তের স্বার্থে তার নাম প্রকাশ করেননি পুলিশ।