অস্ট্রেলিয়ায় উচ্চশিক্ষার দূতাবাস ফি ৮ সপ্তাহ মওকুফ

উচ্চশিক্ষার জন্য অস্ট্রেলিয়া একটি জনপ্রিয় দেশ। প্রতিবছর বিশ্ব থেকে প্রায় ৭ লক্ষাধিক শিক্ষার্থী পাড়ি জমান অস্ট্রেলিয়ায়। বাংলাদেশেও উচ্চশিক্ষার জন্য অস্ট্রেলিয়াকে জনপ্রিয় দেশ হিসেবে বিবেচনা করা হয়। প্রতিবছর বাংলাদেশ থেকেও প্রায় সহস্রাধিক শিক্ষার্থী পাড়ি জমান।

জানা যায়, চলতি বছর অস্ট্রেলিয়ায় আন্তর্জাতিক শিক্ষার্থীর জন্য উঠিয়ে নেওয়া হয়েছে চাকরির সময়ের সীমাবদ্ধতা এবং মওকুফ করে দেওয়া হয়েছে দূতাবাস ফি। ফলে আন্তর্জাতিক শিক্ষার্থীরা কী ধরনের সুবিধা পাবেন, এ বিষয়ে কথা বলেছেন পিএফইসি গ্লোবালের বাংলাদেশ পরিচালক মিসেস ফারিহা বেগম এবং প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো. শহিদুল ইসলাম।

অস্ট্রেলিয়া উচ্চশিক্ষার জন্য প্রসিদ্ধ। তার একটি বড় কারণ হলো, অস্ট্রেলিয়ায় উচ্চশিক্ষার কারিকুলাম বিশ্বের সেরা কারিকুলামের মধ্যে একটি। শীর্ষস্থানীয় অনেক শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এ দেশে আছে। শুধু তা-ই নয়, অস্ট্রেলিয়া উচ্চশিক্ষার জন্য যেমন উন্নত; তেমন এখানের আধুনিক জীবনযাপন শিক্ষার্থীদের আকর্ষিত করে।

তা ছাড়াও অস্ট্রেলিয়ার শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো আন্তর্জাতিক শিক্ষার্থীদের জন্য অনেক সুযোগ-সুবিধা দিচ্ছে। এখানে শিক্ষার্থীদের সর্বোচ্চ শতভাগ স্কলারশিপ দেওয়া হয়। উচ্চশিক্ষার লক্ষ্য হিসেবে আকর্ষিত করার জন্য অস্ট্রেলিয়া সরকারের পৃষ্ঠপোষকতা রয়েছে। ২০২২ থেকে অস্ট্রেলিয়া সরকার আন্তর্জাতিক শিক্ষার্থীদের জন্য লেখাপড়া চলাকালীন চাকরির সময়ের সীমাবদ্ধতা উঠিয়ে নিয়েছে।

এখন যে কোনো আন্তর্জাতিক শিক্ষার্থী লেখাপড়ার পাশাপাশি সম্পূর্ণরূপে চাকরি করতে পারবেন। এ ধরনের সুবিধা পৃথিবীর অন্য কোনো দেশে দেওয়া হয় না। সেইসঙ্গে পড়াশোনা শেষে সর্বোচ্চ ৪ বছরের চাকরির সুবিধাও দেওয়া হচ্ছে এ দশে।

তারা আরও জানান, অস্ট্রেলিয়া সরকার আন্তর্জাতিক শিক্ষার্থীদের আবেদনের সুবিধার্থে তাদের দূতাবাস ফি গত ২০ জানুয়ারি থেকে আগামী ৮ সপ্তাহের জন্য মওকুফ করার ঘোষণা দিয়েছে। এত সুযোগ-সুবিধার জন্যই আন্তর্জাতিক শিক্ষার্থীরা অস্ট্রেলিয়ায় উচ্চশিক্ষার জন্য আকর্ষিত হয়। একই কারণে অস্ট্রেলিয়াকে বিবেচনা করা হয় উচ্চশিক্ষার ভূস্বর্গ হিসেবে।

ফারিহা বেগম ও মো. শহিদুল ইসলাম জানান, পিএফইসি গ্লোবাল সব সময় বিদেশে উচ্চশিক্ষায় আগ্রহী শিক্ষার্থীদের সাহায্যে অগ্রগামী। আগ্রহীরা অস্ট্রেলিয়ার এ সুযোগ নিতে চাইলে আগামী জুলাই এবং নভেম্বর ইনটেকের জন্য আবেদন করতে পারবেন।

তারা জানান, আগামী ১০ ফেব্রুয়ারি পিএফইসি গ্লোবাল তাদের ঢাকা অফিসে আয়োজন করতে যাচ্ছে ‘অস্ট্রেলিয়ান এডুকেশন এক্সপো-২০২২’। আয়োজনটি এ বছরের জুলাই এবং নভেম্বরে ইনটেক আবেদনে ইচ্ছুক শিক্ষার্থীদের জন্য।

আয়োজকরা জানান, শিক্ষার্থীরা অস্ট্রেলিয়ান এডুকেশন এক্সপোতে সরাসরি ত্রিশের বেশি বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিনিধিদের সঙ্গে কথা বলতে পারবেন। জানতে পারবেন স্কলারশিপ সম্পর্কে। এখানে থাকবে স্পট অ্যাডমিশনের সুযোগ। আগ্রহীদের জন্য আরও থাকবে ট্যাব জিতে নেওয়ার সুযোগ।

ফারিহা বেগম বলেন, ‘পিএফইসি গ্লোবাল শুধু অস্ট্রেলিয়া নয়; কানাডা, আমেরিকা, ইউকে, মালেয়শিয়ায় উচ্চশিক্ষা নিয়েও কাজ করে। এমনকি সম্পূর্ণ বিনা মূল্যে কাজ করে। ১৫ বছরের বেশি অভিজ্ঞতা নিয়ে পিএফইসি গ্লোবালের লক্ষ্য শিক্ষার্থীদের বিদেশে উচ্চশিক্ষায় সাহায্য করা।’

তারা শিক্ষার্থীদের পিএফইসি গ্লোবালের ঢাকা এবং চট্টগ্রাম অফিসে আমন্ত্রণ জানান। তাদের ঢাকা অফিস ধানমন্ডির রাপা প্লাজা সংলগ্ন সিমা ব্লসম টাওয়ার। চট্টগ্রাম অফিস হচ্ছে এশিয়ান হাইওয়ে সানমার ওশেন সিটি সংলগ্ন এমএম টাওয়ারের ৮ম ফ্লোর।