অপরাধীদের রক্ষা করতে আসবেন না: প্রধানমন্ত্রী

অপরাধীদের রক্ষা করতে আসবেন না- এ কথা বলে জনপ্রতিনিধিদেরকে হুঁশিয়ার করলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সরকার কোনো অপরাধকেই প্রশ্রয় দিচ্ছে না উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী সংসদে বলেন, ঘোড়াঘাটের ইউএনও’র ওপর হামলাকারীদের পাশাপাশি এই ঘটনায় ইন্ধন দাতাদেরও খুঁজে বের করার চেষ্টা চলছে।

একাদশ জাতীয় সংসদের নবম অধিবেশনে প্রশ্নোত্তর পর্বে এসব কথা বলেন তিনি।

সম্প্রতি দুর্বৃত্তের নির্মম হামলায় গুরুতর আহত হন দিনাজপুরের ঘোড়াঘাট উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা ওয়াহিদা খানম। এখনো মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছেন তিনি। মাঠ প্রশাসনের গুরুত্বপূর্ণ এই কর্মকর্তা কখনো স্বাভাবিক জীবনে ফিরতে পারবেন কিনা, সেটিও অনিশ্চিত। দেশব্যাপি সমালোচনার ঝড় ওঠে এই ঘটনায়।

ঘটনার এক সপ্তাহের মাথায় অবশেষে বিষয়টি সংসদ পর্যন্ত গড়িয়েছে। বুধবার (০৯ সেপ্টেম্বর) সংসদের চলমান অধিবেশনে প্রশ্নোত্তর পর্বে সংসদ নেতা শেখ হাসিনা হুঁশিয়ারি দেন, ছাড় দেয়া হবে না জড়িত কাউকেই।

আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে গোয়েন্দা সংস্থাসহ সব বাহিনী সক্রিয় রয়েছে উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, অপরাধীকে ভিন্ন চোখে দেখার সুযোগ নেই।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, কিছু কিছু বলছে চুরি, তবে শুধু চুরি না। আরও কি আছে তা খতিয়ে দেখতে হবে। সেক্ষেত্রে অপরাধী আমার দলের লোক হলেও তাকে ছাড় দেয়া যাবে না।

এই ঘটনায় পেছনে কারা মদদ দিয়েছে তাদেরও খুঁজে বের করার চেষ্টা চলছে। কোনো জনপ্রতিনিধি যাতে অপরাধীকে রক্ষার চেষ্টা না করে, সতর্ক করেন শেখ হাসিনা।

তিনি আরো বলেন, এই ঘটনার মূলে কারা আছেন, সেটাও দেখা হচ্ছে। সব বিষয়ে তদন্ত হচ্ছে।

৭৫ পরবর্তী সরকারগুলোর সমালোচনা করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, যে দেশে অন্যায়ই ছিলো নিয়ম, সেই দেশকে নিয়ন্ত্রণে নিয়ে আসা সহজ কাজ নয়।