অজ্ঞাত হিসেবে মর্গে পড়ে ছিল ঢাবি শিক্ষার্থীর লাশ

অজ্ঞাত হিসেবে মর্গে পড়ে ছিল ঢাবি শিক্ষার্থীর লাশ
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী হাফিজুর রহমানের মরদেহ অজ্ঞাত হিসেবে ৯ দিন ধরে ঢাকা মেডিক‌্যাল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের মর্গে পড়ে ছিল। রোববার (২৩ মে) স্বজনরা তার মরদেহ শনাক্ত করেন। ওই শিক্ষার্থীর মৃত্যুর ঘটনা তদন্ত করছে পুলিশ।

রোববার (২৩ মে) শাহবাগ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মামুন উর রশীদ জানিয়েছেন, কয়েক ব‌্যক্তি কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারের কাছ থেকে হাফিজুর রহমানকে অসুস্থ অবস্থায় উদ্ধার করে ঢামেক হাসপাতালে নিয়ে আসেন। ওই রাতেই তাকে মৃত ঘোষণা করেন চিকিৎসক। অজ্ঞাত ব‌্যক্তির লাশ হিসেবে সেটি মর্গে রাখা হয়। তদন্ত করে ওই শিক্ষার্থীর স্বজনদের সন্ধান পাওয়া গেছে।

পুলিশ জানায়, হাফিজুর রহমানের বড় ভাই লাশ শনাক্ত করেন। হাফিজুর ঢাবি তথ্যবিজ্ঞান ও গ্রন্থাগার ব্যবস্থাপনা বিভাগের শিক্ষার্থী ছিলেন। তিনি মূকাভিনেতা এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় মাইম অ্যাকশনের সাধারণ সম্পাদক ছিলেন।

হাফিজুর নয় দিন ধরে নিখোঁজ ছিলেন। কারা তাকে হাসপাতালে নিয়েছিলেন, তা জানতে তদন্তে নেমেছেন গোয়েন্দারা।

হাফিজুর রহমানের মৃত‌্যুতে শোক প্রকাশ করেছে ঢাকা বিশ্ববিদ‌্যালয় কর্তৃপক্ষ।